শনিবার, জুন ১৫, ২০২৪
spot_img

১০ জুন থেকেই বাজারে পাওয়া যাবে ‘হাঁড়িভাঙা আম’

আবহাওয়া পরিস্থিতি বিবেচনায় নির্দিষ্ট সময়ের ১০ দিন আগেই বাজারে আসছে রংপুরের বিষমুক্ত ও অতি সুমিষ্ট আঁশহীন হাঁড়িভাঙা আম। নির্ধারিত তারিখ ২০ জুনের পরিবর্তে এখন ১০ জুন গাছ থেকে আম পারা শুরু হবে।

বুধবার (৭ জুন) বিকেলে এ সংক্রান্ত নোটিশ জারি করেছে রংপুর জেলা প্রশাসন ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। এর আগে, গত সোমবার আম পারার সময় এগিয়ে আনতে রংপুর জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন আমচাষিরা।

জেলা প্রশাসক ড. চিত্রলেখা নাজনীন জানান, আমচাষিরা একটি স্মারকলিপি দিয়েছিলেন। তাতে দাবি করা হয়, হাঁড়িভাঙা আম বাজারজাতে ২০ জুনের পরিবর্তে ১০ জুন করা হোক।

কারণ হিসেবে তারা বলেছেন, অনাবৃষ্টির কারণে আম পাকা শুরু হয়েছে। আম বাগানে রাখা যাচ্ছে না। সরকার নির্ধারিত ২০ জুন আম বাজারজাত শুরু হলে অনেক আম বাগানেই নষ্ট হয়ে যাবে। তাই, তারিখ এগিয়ে আনার দাবি জানান তারা।

তিনি আরও জানান, স্মারকলিপি পাওয়ার পর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরকে বিষয়টি নিয়ে সরেজমিন পরিদর্শন করে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়। তাদের প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে ২০ জুনের পরিবর্তে ১০ জুন থেকে হাঁড়িভাঙা আম আনুষ্ঠানিকভাবে বাজারজাত করা হবে।

জেলা প্রশাসন ও কৃষি সম্প্রসারণের এমন সিদ্ধান্তে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন আমচাষি, ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তারা। হাঁড়িভাঙা আমচাষি পরিষদের সভাপতি আব্দুস সালাম সরকার বলেন, ‘পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় জেলা প্রশাসনকে স্মারকলিপি দিয়ে হাঁড়িভাঙা বাজারজাতের তারিখ ২০ জুনের পরিবর্তে ১০ জুন করার দাবি জানিয়েছিলাম। প্রশাসন আমাদের আবেদনটি বিবেচনায় নিয়েছে।’

এদিকে, চলতি বছর হাঁড়িভাঙা আমের ফলন ভালো হলেও অনাবৃষ্টি-অতিরিক্ত তাপমাত্রায় গতবারের তুলনায় ছোট আকারে আম পাওয়া যাবে।

কৃষি বিভাগ বলছে, এবার জেলায় আম উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৪৫ হাজার ৭৩০ মেট্রিক টন। এর মধ্যে, হাঁড়িভাঙা আমের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ২৯ হাজার ৭০০ মেট্রিক টন। আবহাওয়া ভালো থাকলে শুধু হাঁড়িভাঙা আম বিক্রি করে ২০০-২৫০ কোটি টাকার ব্যবসা করতে পারবেন জেলার আমচাষিরা।

আরো খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ